বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৬:২৪ অপরাহ্ন

আমি রাজাকারের বাচ্চা না, আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, – মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.)
লিটন সরকার বাদল / ১২৭ ভিউ
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

সম্প্রতি ফাঁস হওয়া ফোনালাপে, দেবিদ্বার উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা রুহুল আমিনের সাথে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিতর্কিত সাধারণ সম্পাদক রওশন আলী মাস্টার সম্পর্কে, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য এবং দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের দুইবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী বলেন,

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিতর্কিত সাধারণ সম্পাদক আলী মাস্টার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ গড়া, প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার অবিচল নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কলুষিত করেছেন। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সহ, সারা বাংলাদেশের তৃণমূলের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অনতিবিলম্বে এই বিতর্কিত জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগসহ উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেছেন বলে তিনি
জানায়। তিনি আরো বলেন, আমি রাজাকারের বাচ্চা না! আমি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী একজন বীর সেনানী একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সম্পর্কে এবং তৃণমূল নেতাকর্মীদের সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করায় আজ সারাদিন ব্যাপী দাউদকান্দি – মেঘনায় তৃণমূল নেতৃবৃন্দরা বিক্ষোভ এবং প্রতিবাদ মিছিল করেন।

 

উল্লেখ্য,কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রোশন আলী মাস্টারের একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে, যেখানে তাকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সম্পর্কে নানা বিরূপ মন্তব্য করতে শোনা গেছে।

ফোনালাপে তিনি বলেছেন, ‘কী হবে এ দেশে রাজনীতি করে? টাকা দিলেই নমিনেশন পাওয়া যায়, মন্ত্রিত্ব পাওয়া যায়, যারা নৌকা করেন, তারা রাজাকারের বাচ্চা। বিরোধী দল মাঠে নেই বলেই দেশ একতরফা চলছে, দেশের এ অধঃপতন।’

ফোনালাপের অডিও ক্লিপটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। নানা মহলে সমালোচনা শুরু হয়েছে। ফোনটির অপরপ্রান্তে ছিলেন দেবিদ্বারের বিএনপি সমর্থিত সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন। উভয়ের নির্বাচনী এলাকাই দেবিদ্বার।

প্রায় দুই মিনিটের ওই অডিও ক্লিপ রোশন আলী মাস্টার এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিনের বলে দুজনেই স্বীকার করেছেন। তবে রোশন মাস্টার বলছেন, ফোনালাপটি খণ্ডিত করে প্রচার করায় এমনটি হয়েছে, পুরো অডিও প্রকাশ পেলে বিষয়টি নিয়ে এতটা সমালোচনা হত না।

উভয়ের কথা হয় চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে। এরমধ্যে সোমবার মধ্যরাতে ফোনালাপটি সামাজিক যোগাযোগ মাধমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর মঙ্গলবার সকালে সেটি একটি মাধ্যমে দাউদকান্দি নিউজের হাতে আসে।

এতে শোনা যায়, বিএনপির রহুল আমিনের উদ্দেশে রোশন আলী মাস্টার বলছেন, ‘এখনও বলি কী হবে (আপত্তিকর) এ রাজনীতি করে, যারা নৌকা করেন, সব রাজাকারের বাচ্চা। কী করবেন, যে দেশে টাকা দিলে নমিনেশন পাওয়া যায়, যে দেশে টাকা দিলে মন্ত্রিত্ব পাওয়া যায়, যে দেশে টাকা দিলে সব চলে। আপনারা বিরোধী দল শক্ত না বলে মামলা-হামলার ভয়ে মাঠে নামেন না, আপনার নেতারা চিপায় বসে মাইক নিয়ে ফকরবাজি করেন। একচেটিয়া কি একটা দেশ চলে? বিরোধী দল সব সময় স্ট্রং থাকতে হয়, আপনারা যদি সুযোগ দেন তাহলে তো অপকর্ম হবেই, যা ইচ্ছা তা-ই হবে, দেশের এই অধঃপতনের জন্য দায়ী আপনাদের বিরোধী দল।’

এ বিষয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ম. রুহুল আমীন বলেন, রোশন আলী মাস্টারের ভাইরাল হওয়া ফোনালাপ শুনে আমি নিজেই হতবাক। তার মতো একজন দায়িত্বশীল নেতার মুখে এমন আপত্তিকর কথা! শুনে আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। একজন সিনিয়র নেতার পক্ষে এ ধরনের কথাবার্তা বলা মোটেও সমীচীন হয়নি।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ