শনিবার, ২১ মে ২০২২, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন

একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসাবে আমি নৌকা প্রতীক পাওয়ার বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী, সোহেল রানা
লিটন সরকার বাদল, / ২২৩ ভিউ
সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ২১ মে ২০২২

দুয়ারে হাজির ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে উত্তাপ উত্তেজনায় নির্বাচনী মাঠে, প্রকম্পিত হচ্ছে প্রার্থীদের পদচারণায়। নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন পেতে দেশের রাজধানী ঢাকাতে জোর লবিং তৎপরতা চালাচ্ছে, আরাম-আয়েশ ত্যাগ করে বড় বড় নেতাদের বারান্দায় ধরনা দিচ্ছেন নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেতে। কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন দাউদকান্দি সদর উত্তর ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ও একজন হেভিওয়েট চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ৭১ রণাঙ্গনের বীর সেনানী সম্মুখপানের একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মো. সোহেল রানা দীর্ঘদিন যাবৎ রাজনৈতিক মাঠে সক্রিয়। তিনি ব্যাপক প্রচার-প্রচারণায় এই মুহূর্তে শীর্ষে রয়েছেন। নৌকা প্রতীকে যেসব মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম শোনা যাচ্ছে তাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। কারণ বিগত দিনে দুর্যোগ ও বৈশ্বিক মহামারী করোনাকালীন সময়ে বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে থেকে দু’হাত উজাড় করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। তিনি একাধারে রাজনীতিবিদ ও একজন শিক্ষাণুরাগী হিসেবে এলাকায় ব্যাপক সুনাম সুখ্যাতি রয়েছে। ঐতিহ্যবাহী দাউদকান্দি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধারে একজন সফল শিক্ষানুরাগী হিসেবে ১০ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। বিভিন্ন পেশা শ্রেণীর মানুষের প্রথম পছন্দের তালিকায় তাঁর নামটি শোনা যাচ্ছে। এই এলাকার মানুষ মনে করে তরুণ প্রজন্মের যদি কেউ জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয় তাহলে এলাকার মানুষের মন মানসিকতা সহজে বুঝবে এবং গরীব -দুঃখী মানুষের জন্য সর্বদা কাজ করবে। বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা ও চার দোকানের আড্ডা ও ইতিবাচক আলোচনায় তাঁর নামটি শোভা পাচ্ছে। এলাকার মানুষ মনে করে তিনি একজন জনবান্ধব নেতা। সে যদি নৌকা প্রতীক পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয় তাহলে এলাকার অনেক উন্নয়ন হবে এবং মানুষের অনেক উপকার হবে। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে বেশিরভাগ উপকারভোগী ও সুবিধাবঞ্চিত সাধারণ ভোটাররা চেয়ারম্যান হিসেবে সোহেল রানাকে পেতে চায়। কথা হয় চেয়ারম্যান প্রার্থী ও নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী সোহেল রানার সাথে তিনি বলেন, ” তরুণরা আজ মাদকের রাহুগ্রহে হারিয়ে যাচ্ছে।তাই আমি চাই আমার এলাকার তরুণরা সুন্দর জীবন গঠন করুক।কারণ তরুণরা ভালো থাকলে একটি আলোকিত সমাজ উপহার দিতে সহজতর হবে। তিনি বলেন, করোনাকালীন সময়ে কর্মহীনদের ও বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহায়তা করেছিলাম। এ ইউনিয়নের জনগণের ভালোবাসার ঋণের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমি আমার ইউনিয়নের জনগণের কাছে চিরঋণি ও চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।জনগণের দোয়া ও সমর্থন নিয়ে আমি প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হতে চাই। মো. সোহেল রানা বলেন,মানুষ পৃথিবীতে অমর হয় না,কিন্তু সুকর্মের মাধ্যমে,মানবিক কাজের মধ্য দিয়ে অমর হয়। আমি চাই,সকলকে নিয়ে ভালো থাকতে। আমাদের জীবন ক্ষণস্থায়ী। এই ক্ষণস্থায়ী জীবন কর্মফলের মধ্য দিয়ে দীর্ঘস্থায়ী হয়।মানুষ মরে গেলেও কর্মের মধ্য দিয়ে মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকতে পারে। আমিও জনগণের মাঝে নিজেকে বিলীন করতে চাই। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনা ও বাংলাদেশ আ.লীগের মনোনয়ন বোর্ডের প্রতি আমার আস্থা ও বিশ্বাস আমাকে একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দিবেন।তবে আমি শতোভাগ আশাবাদী নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পাবো-ইনশাল্লাহ। সোহেল রানা পরিশেষে বলেন,সদর উত্তর ইউনিয়নবাসিকে অনুরোধ করছি আমাকে আপনাদের সেবক হিসেবে একবার সুযোগ দিন। আশা করি আমাকে সুযোগ দিলে আপনারা প্রতারিত হবেন না,আপনারা ঠকবেন না।”

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ