শনিবার, ২১ মে ২০২২, ১২:০৩ অপরাহ্ন

খুলনার ঘের ব্যাবসায়ীরা প্রকৃতির নিষ্ঠুরতার শিকার
সুশান্ত মণ্ডল, খুলনা / ২৩৮ ভিউ
সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ২১ মে ২০২২

গত কয়েকমাস ধরে টানা আনাবৃষটির কারণে ডোবা,নালা,খাল সব শুকিয়ে যাবার উপক্রম। ঘেরের ভিতর যে ছোট পুকুর বা নালা থাকে তার সব চিংড়ি ও সাদা মাছ মরে প্রায় শেষ।

খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার গুটুদিয়া ইউনিয়নের উত্তর বিলপাবলা গ্রামের ঘের ব্যাবসায়ী বলাই মণ্ডল জানান, তার সাড়ে তিন বিঘার একটি ঘেরে সব চিংড়ি ও মাছ প্রায় মরে শেষ নতুন রেনু পোনা ছাড়ারতো কোন উপায় দেখছেন না। সাধারনত চৈত্র বা বৈশাখ মাসের মাঝামঝি সময়ে অধিকাংশ রেনু পোনা ছাড়া হয়ে যায়। কিন্তু এ বছর কন ভাবেই সম্ভব হচ্ছে না। আবহাওয়া এতটাই উষ্ণ এবং দীর্ঘ দিন বৃষ্টি না হওয়ায় ঘেরে পানি শূন্যতার কারনে চিংড়ি ও সাদা মাছ আর জীবিত থাকছে না। ধার দেনা করে অধিকাংশ ঘের ব্যবসায়ী ঘের করে । এ সময় কিছু চিংড়ি পিস হিসাবে রেখে দেয় যে গুলো ভাদ্র-আশ্বিন মাসে বিক্রি করে কিছু টাকা পায় এবং এই টাকা দিয়ে নতুন পোনার খাবার দিতে পারে। কিন্তু এবার সব মরে শেষ চাষীরা খুব অনিশ্চিত ভবিষ্যতে দিন কাটাচ্ছে। তারা এ লোকসান পুষিয়ে ঘুরে দাড়াতে তাদের সরকারি সহায়তা প্রয়োজন বলে জানান তারা।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের এসোসিয়েট প্রফেসর মাসুদুর রহমান বলেন, বৈশ্বিক উষ্ণায়নের প্রভাব বাংলাদেশেও পড়েছে। আমরা নিজেরাই এ বিরূপ আবহাওয়ার জন্য দায়ী।

সকল ঘের ব্যাবসায়ী ও দেশের সকল জনগনের প্রকৃতি মাতার কাছে একটাই চাওয়া, তিনি যেন তার এই নিষ্ঠরতা থেকে সকলকে মুক্তি দেন এবং প্রকৃতিকে সবুজে শ্যামলে ভরিয়ে দেন। চাষিরা যেন আবার হাসতে পারে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ