বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৪৬ অপরাহ্ন

হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা ও মন্দির ভাংচুরের প্রতিবাদে শ্রীমঙ্গলে মানববন্ধন
অরবিন্দ দেব , শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি : / ১৫২ ভিউ
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে খুলনার রূপসার শিয়ালি, সুনামগঞ্জের শাল্লায়, পটুয়াখালীর কলাপাড়ায়, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া এবং ঢাকার সাভারে অধ্যক্ষ মিন্টু চন্দ্র বর্মন হত্যা ও সারাদেশে হিন্দু পরিবারের উপর হামলা ও মন্দিরের প্রতিমা, ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লুটপাট ও ভাংচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) সকাল ১০টায় শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্ত্বরে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখা এবং তরুন সনাতনী সংঘ (টি.এস.এস) এর আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
তরুন সনাতনী সংঘ (টি.এস.এস) এর কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহবায়ক শম্ভু সরকার রবিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি জয় ধর,
সম্পাদক লিটন দেব, দপ্তর সম্পাদক অনিক ভট্রাচার্য, টিএসএস শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক সৌরভ আদিত্য, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী এস কে দাশ সুমন, বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোটের সহ সাধারণ সম্পাদক সত্যকাম ভট্রাচার্য, অনুরাগ দত্ত, পরিতোষ দাশ, সাংস্কৃতিক কর্মী নৃপেশ সুত্রধর প্রমূখ।

বক্তরা বলেন ৭ আগস্ট শনিবার দুপুর ৩ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত খুলনা জেলার রুপসা উপজেলায় শিয়ালি গ্রামে দুষ্কৃতিকারীরা হামলা চালিয়ে ৪ টি বড় মন্দির সহ ১০ টি মন্দির, ৫৭টি বাড়িঘর ও ৭ টি দোকান ভাঙচুর ও লুটপাট করে এবং অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালি সহ দেশত্যাগ ও প্রাণ নাশের হুমকি দেয় ।

বক্তারা আরো বলেন, খুলনার শিয়ালি গ্রামের ঘটনা সহ উল্লেখিত ঘটনা সমূহ তদন্তপূর্বক দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে এবং ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করতে হবে। আক্রান্তদের দ্রুত সহায়তা ও নিরাপত্তার পাশাপাশি সারাদেশের সংখ্যালঘু সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়নেরর দাবী জানান।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ